বিনামূল্যে পিরিয়ডে প্রয়েজনীয় পন্য সরবারাহের সিদ্ধান্ত স্কটল্যান্ডের

বিনামূল্যে  পিরিয়ডে প্রয়েজনীয় পন্য সরবারাহের সিদ্ধান্ত স্কটল্যান্ডের
ছবি: সংগৃহীত
'পিরিয়ড পোভার্টি' মোকাবেলার লক্ষ্যে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে বিনামূল্যে পিরিয়ড বা মাসিকের জন্য প্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্কটল্যান্ড।

'পিরিয়ড পোভার্টি' মোকাবেলার লক্ষ্যে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে  বিনামূল্যে পিরিয়ড বা মাসিকের  জন্য প্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্কটল্যান্ড।    


স্যানিটারি ন্যাপকিনসহ পিরিয়ডের বিভিন্ন পণ্য প্রয়োজন অনুযায়ী বিনামূল্যে দেওয়া হবে স্কটল্যান্ডে। এসংক্রান্ত একটি পরিকল্পনা দেশটির পার্লামেন্ট অনুমোদন দিয়েছে। এ সিদ্ধান্তের মাধ্যমে বিশ্বে নজির সৃষ্টি করলো স্কটল্যান্ড।  আইনটির নাম দেওয়া হয়েছে “দ্য পিরিয়ড প্রোডাক্টস (ফ্রি প্র্রভিশন) স্কটল্যান্ড বিল”। 


এই বছরের শুরুর দিকে একটি খসড়া বিল সংসদে প্রাথমিক অনুমোদন পেয়েছিল।
পার্লামেন্টে উত্থাপনের প্রথম ধাপেই এটির পক্ষে ভোট দেন ১১২ জন সদস্য। কেউই এর বিরোধিতা করেননি। তবে মঙ্গলবার সংসদে  যুগান্তকারী এই পরিকল্পনাটি চূড়ান্ত অনুমোদন পায়।


এর আগে এমন কোনো সিদ্ধান্ত নিতে দেখা যায়নি বিশ্বের অন্য কোনো দেশকে। এখন থেকে দেশটির বিভিন্ন উন্মুক্ত স্থান যেমন- কমিউনিটি সেন্টার, ইয়ুথ ক্লাব ও ফার্মেসি থেকে পিরিয়ডের সময়কার এসব নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যগুলো বিনামূল্যে নিতে পারবেন নারীরা। এই প্রকল্পের প্রাথমিক ব্যয় ধরা হয়েছে বছরে ৩১২ লাখ মার্কিন ডলার অর্থাৎ প্রায় ২৬৪ কোটি টাকা।


স্কটল্যান্ডের এক মন্ত্রী নিকোলা স্টারজান মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভোটের পর পরই টুইটারে এক পোস্ট বলেন,  তিনি এই যুগান্তকারী আইনটির পক্ষে ভোট দিতে পেরে গর্বিত এবং এ উদ্যোগকে  তিনি "মহিলা ও মেয়েদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নীতি" বলে অভিহিত করেন।


 উল্লেখ্য,  দু'বছর আগে ২০১৮ সালে স্কটল্যান্ড একটি সরকারি কর্মসূচির মাধ্যমে স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে স্যানিটারি প্যাড সরবরাহ শুরু করে তখনও ইতিহাস রচনা করে। ওয়েলস এবং ইংল্যান্ডকেও স্কটল্যান্ডকে অনুসরণ করে গত বছর স্কুলে বিনামূল্যে স্যানিটারি পণ্য সরবরাহ করতে দেখা যায়।