শনিবার,২০ অক্টোবর ২০১৮
হোম / জীবনযাপন / বসকে ইমপ্রেস করুন সহজেই
০৯/১৯/২০১৮

বসকে ইমপ্রেস করুন সহজেই

-

অনেকেই ভেবে থাকেন শুধু কঠোর পরিশ্রম আর স্মার্টনেস দিয়েই কর্মক্ষেত্রে সাফল্য পাওয়া সম্ভব। কথাটি সঠিক তবে পুরোপুরি নয়। অফিসে আপনার দ্রুত উন্নতি আর স্বীকৃতি - অনেকখানি নির্ভর করে আপনার প্রতি আপনার বসের সুদৃষ্টির উপর। তাই বসকে ইমপ্রেস করা একটি আবশ্যক কাজ বৈকি। এখন কথা হলো আপনার সুপিরিয়র বা বসকে সঠিক পন্থায় ইমপ্রেস করবেন কী করে?

কাজটি সহজ, যদি আপনি সজাগ আর সচেতন থাকেন। গতানুগতিক স্টাইল অনুসরণ না করে স্মার্ট টেকনিক ব্যবহার করুন।

বসের সাইকোলজি বুঝুন
প্রথম এবং সবচেয়ে প্রয়োজনীয় কাজ হলো আপনার বসের সাইকোলজি বুঝতে পারা। কেননা তখনই শুধুমাত্র আপনি তাকে সন্তুষ্ট করার উপায় বের করতে পারবেন। খেয়াল করে দেখুন আপনার বস ইনপুটের দিকে নজর বেশী দেন নাকি আউটপুটের দিকে। এক্ষেত্রে আপনার চাকরির ধরন বা জব রেসপনসিবিলিটির দিকে খেয়াল রাখুন, আপনার কাজের ধরনের উপরেই নির্ভর করবে আপনার বস কোনদিক থেকে আপনাকে পর্যবেক্ষণ করবেন। আপনার পারফর্মেন্স কোন উপায়ে মূল্যায়ন করা হচ্ছে তা বের করতে পারাই আপনার এগিয়ে যাওয়ার প্রথম ধাপ।

কাজে নেমে পরুন
আপনার কাজের প্রকৃতি আর বসের সাইকোলজি- দুটিই তো উদ্ধার করা গেল। এবার তাহলে সেই অনুসারে কাজে নেমে পড়ুন। আপনার ইনপুট আর আউটপুটের মান আর কার্যকারিতা বাড়াতে ছক কষে ফেলুন। মেমো বা ‘টু ডু লিস্ট’ ফলো করুন। এর আগে চলুন দেখে নিই ইনপুট আর আউটপুটের কি কি দিক নিয়ে কাজ করতে হবে।

ইনপুট এফেক্টিভ করতে কয়েকটি বিষয়ের দিকে বিশেষ নজর দিন-
* অফিসে সবার আগে আসুন আর সবার পরে যাওয়ার অভ্যাস করুন;
* পারফেক্ট ড্রেসআপে থাকুন, পরিপাটি ফর্মাল লুক মেইন্টেইন করুন;
* ব্যক্তিগত সমস্যা বা বিষয়াদি অফিসে নিয়ে আসবেন না;
* প্রফেশনাল থাকুন সবসময়;
* সবসময় আপ-টু-ডেট থাকতে হবে, দক্ষতার সাথে কাজ করুন;
* অফিসে নিজের কাজে ব্যস্ত থাকুন, অলসতা দেখানো যাবে না একদমই।

এবার আসা যাক আউটপুট নিয়ে। যা যা করতে পারেন-
> প্রোঅ্যাক্টিভ থাকুন, সবসময় নতুন আইডিয়া জেনারেট করুন আর তা বসের সাথে শেয়ার করুন।
> যেকোন অ্যাসাইনমেন্টের ডেডলাইনের ব্যাপারে সজাগ থাকুন আর চেষ্টা করুন আগেই কাজ জমা দেবার।
> বসের দেয়া প্রজেক্ট বা রিসার্চ অ্যাসাইনমেন্ট সাথে সাথেই গ্রহণ করুন।
> নিজের কাজের আর উন্নতির রেকর্ড রাখুন, উল্লেখযোগ্য অর্জন বসকে সময় বুঝে স্মরণ করিয়ে দিন।

নেতৃত্বগুণ চাই
মনে রাখবেন, বসেরা সবসময় এমন কর্মীকে পছন্দ করেন যার মধ্যে লিডারশিপ গুণ রয়েছে। যেকোনো প্রজেক্ট বা কাজে লিড দিন, ভালোভাবে সুপারভাইস করুন সবকিছু। সিদ্ধান্ত নিতে চৌকস হোন।

সৎ থাকুন
মিথ্যা বলে বা ফাঁকি দিয়ে কখনই উন্নতি করা সম্ভব নয়, আর বসকে ইমপ্রেস করা তো দূরের কথা। মনে রাখবেন, তিনি আপনার বস আর তিনি সবই খেয়াল করেন। তাই নিজের কাজের ব্যাপারে সৎ থাকুন, সাফল্য আসবেই।

ইতিবাচক কর্মী হোন
কর্মক্ষেত্রে পজিটিভ অ্যাপ্রোচ খুব বেশিই নজর কাড়ে। তাই সবসময় যেকোন সমস্যা বা সম্ভাবনাকে পজিটিভলি নিন। আপাত দৃষ্টিতে যা নেগেটিভ বা বাজে লাগছে তাও পজিটিভলি নিন। অফিশিয়াল মিটিংগুলোতে ইতিবাচক থাকুন, স্মার্ট হোন।

অভিযোগ করা চলবে না
সব বিষয়ে অভিযোগ করার প্রবণতা ছেড়ে দিন, এটি বসের কাছে আপনাকে বাজে কর্মচারি হিসেবে প্রতিপন্ন করবে। পরিস্থিতির সাথে নিজেকে মানিয়ে নিন, সমস্যা সমাধানে নিজেই পদক্ষেপ নিন। তাতে বসের কাছে আপনার ইমেজ ভাল হবে, আপনার সঠিক মূল্যায়ন করবেন তিনি।

সুসম্পর্ক বজায় রাখা জরুরি ভীষণ
বসের সাথে তো অবশ্যই, অফিসের সব কলিগের সাথেও সুসম্পর্ক বজায় রাখবেন। এতে আপনার ইম্প্রেশন ভাল থাকবে। ঝামেলাবাজ কর্মচারিকে বস কেনই বা পছন্দ করবে বলুন? একদিকে প্রফেশনাল, অন্যদিকে সদাহাস্যমুখ সামাজিক একজন কর্মী হিসেবে নিজেকে দাঁড় করান। সবার কাছে আপনার ভাল অবস্থান আপনাকে নেতৃত্বের আসনে বসিয়ে দিবে। বসকে ধন্যবাদ দিতে শিখুন আপনি সঠিকভাবে মূল্যায়িত হলে বা কাজে তার সাহায্য পেলে। আর আপনি সঠিকভাবে মূল্যায়িত হলে বা কাজে সহযোগিতা পেলে বসকে ধন্যবাদ দিতে ভুলবেন না কিন্তু।

- তানভীর
ছবিঃ শুহরাত শাকিল চৌধুরী