সোমবার,১৯ নভেম্বর ২০১৮
হোম / অন্দর-বাগান / ঋতু বদলের সাথে বদলে যাক ঘরের সাজ
০৭/১৮/২০১৮

ঋতু বদলের সাথে বদলে যাক ঘরের সাজ

-

ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে আমাদের দৈনন্দিন জীবনেও পরিবর্তন আসে। এরকম সময়গুলোতে চাইলেই আপনি বদলিয়ে নিতে পারেন বাসার সজ্জা। বাসার আসবাবপত্রগুলো একটু ভিন্নভাবে সাজিয়ে নিলে উপভোগ করতে পারবেন এদের রঙ, নিদর্শন ও টেক্সচারের ভিন্নতা। যেই সিজনই আসুক না কেন, আপনি সহজেই বাড়ির জিনিসপত্রগুলোকে সঠিকভাবে সাজিয়ে সময়োপযোগী লুক দিতে পারেন।

কুশন বদলান
বাসার লুক পরিবর্তন করার সবচেয়ে সহজ উপায় হলো কুশন কাভার বদলে ফেলা। এতে ঘরে নতুন রঙ ও টেক্সচার আসবে। যেমন, শরৎকালে ড্রয়িংরুম সাদা ও হালকা বাদামি বা আকাশি রঙের কুশন দিয়ে সাজান। আবার গ্রীষ্মকালে নীল রঙের কুশন বেছে নিন, যা ঘরে সমুদ্র সৈকতের পানির ঢেউ-এর ভাব নিয়ে আসে। নতুন কিনতে না চাইলে পুরনো কুশনগুলোর জায়গা বদল করুন ভিন্নতা আনার জন্য।

বেডিং পরিবর্তন
আপনি বাসার রঙ বদলে দিতে চাইলে প্রতিঘরের বেডিং ভিন্নভাবে সাজিয়ে নিন। বিছানা এমনিতেই সবার জন্য স্বাচ্ছন্দ্য উপভোগের একটি জায়গা, সাথে মৌসুমি আমন্ত্রণ থাকলে প্রতিরাতে ক্লান্তির পর বিছানাটিই বেশি টানবে আপনাকে। গ্রীষ্মকালে শীতল, হালকা রঙের চাদর ও কাভার বেছে নিন, সাথে খেয়াল করুন বাতাস আসা-যাওয়া করতে পারে কিনা। অন্যদিকে ঠান্ডার সময় গাড় বাদামি, বেগুনি বা চকলেট রঙের বেডিং বিছান। শীতকালে একই রঙের কম্বল রাখুন বিছানায়। বেডকভার একটু ভারি কাপড়ের ও রঙিন নকশার ব্যবহার করুন। চাইলে শরতে হালকা নীল, বসন্তে বাসন্তি রঙের বেডিং বেছে নিতে পারেন।

মৌসুমি লুক
ঋতু পরিবর্তনে অনুপ্রাণিত হয়ে ঘরের জন্য জাঁকজমক একটি লুক খুঁজে নিন। সামর্থ্য থাকলে পার্সোনাল ডেকরেটরের সাথে কথা বলে বাসার জিনিসগুলোর সাহায্যেই বিভিন্ন ঋতুর সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলতে পারেন। গরমকালে চাইলে বাঁশের তৈরি পাখা দিয়ে সাজাতে পারেন ঘরের একটি কোণা, বর্ষায় তেমনি ছাতা রাখার কর্ণারটিকে ঘিরে কয়েকটি কদম ফুল সাজিয়ে রাখতে পারেন। তাছাড়া কিছু জিনিস সব ঋতুর জন্যই সমানভাবে প্রযোজ্য, যেমন কাঠের বাক্সে মোম রাখা বা অ্যান্টিক ট্রে ও প্লেট দেয়ালে টানিয়ে দেয়া।

নতুন কার্পেট ও ম্যাট
ঋতুর সাথে ঘরের ম্যাটগুলো বদলে নিন। এক্ষেত্রে এরিয়া ম্যাট থেকে শুরু করতে পারেন। এরিয়া ম্যাট পুরো ঘরের লুকটিকে একসাথে জুড়ে দেয়। ম্যাট চাইলেই এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নেয়া যায় বলে চাইলেই আপনি এক ঘরেরটি অন্য ঘরে দিয়ে লুক বদলাতে পারবেন সহজেই। তবে অবশ্যই ঘরের দেয়ালের রঙ ও অন্যান্য আসবাবপত্রের দিকে খেয়াল রেখে ম্যাট কিনবেন।

মৌসুমী ফল রাখুন
মৌসুমী ফল শুধু খেতে সুস্বাদুই নয়, দেখতেও সুন্দর। যেকোনো একটি ঝুড়িতে কয়েকটি আপেল কমলা রেখেই ক্ষান্ত হবেন না। ঋতু চিন্তা করে কয়েকটি ফল ভেবে নিন ও তাদের একসাথে একটি বোলে গুছিয়ে রাখুন। ফলের সাথে একই গাছের ফুল, পাতা বা বাদামও সাজিয়ে দিতে পারেন। বোলটি কেনার সময় থিম চিন্তা করে কিনুন। এই ডেকোরেশন পিসটি ডাইনিং রুমে বা রান্নাঘরে রাখলে ঘরটির শোভা বেড়ে যাবে।

এছাড়া বছরের একেক সময় একেক রকমের তাজাফুল পাওয়া যায়, সেসব ফুল নিয়মিত ড্রইংরুমে সাজিয়ে রাখতে পারেন। এতে মনের বিষণ্ণতাও দূর হবে, ঘরের সৌন্দর্যেও নান্দনিক ভাব প্রকাশ পাবে।

ঋতুভেদে ঘরের সব সাজসজ্জায় ভিন্ন রঙের ব্যবহার উষ্ণতার আমেজ নিয়ে আসে। এ সময়গুলোতে ঘরের সৌন্দর্য বাড়াতে নতুন ধরনের সাজসজ্জা প্রয়োজন। ভিন্নধর্মী আলোকসজ্জা, রঙিন পর্দা, ফুলের সাজ ঘরের ভেতরে ভিন্নতা নিয়ে আসবে। পুরনো ঘরই নতুন সাজে হয়ে উঠবে নান্দনিক।

- নুসরাত ইসলাম