শনিবার,২০ অক্টোবর ২০১৮
হোম / বিজ্ঞান-প্রযুক্তি / অনলাইনে বিশ্বকাপের খেলা
০৭/০১/২০১৮

অনলাইনে বিশ্বকাপের খেলা

-

বিশ্বকাপ জ্বরে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। নিতান্তই ফুটবলবিমুখ মানুষটিও এখন বিশ্বকাপের মহাযজ্ঞে ঠিকই চোখ রাখছেন। তবে দৈনন্দিন জীবনের ব্যস্ততা যে বিশ্বকাপের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলবে, তা তো নয়। নানা কাজে ঘরের বাইরে যেতেই হয়, মিস হয়ে যায় বিশ্বকাপের উত্তেজনার মুহূর্ত। আবার ফাস্ট ইন্টারনেটের যুগে টেলিভিশন এখন অনেকের কাছে আক্ষরিকভাবেই বোকা বাক্স ছাড়া কিছুই নয়। ঘরের বাইরের ব্যস্ততা, ডিশ-ক্যাবল লাইনের সমস্যা কিংবা প্রযুক্তি বাজারে স্ট্রিমিং সার্ভিসের জোয়ার, সে যাই হোক না কেন, এই বিশ্বকাপের সময়েও টেলিভিশন সেটের সামনে বসাটা অনেকের কাছেই রীতিমতো দুরূহ ব্যাপার। তবে তাই বলে কি বিশ্বকাপের উত্তেজনা একেবারে মিস হবে? না, সমাধান মিলবে অ্যাপ অথবা ওয়েবসাইট ভিত্তিক লাইভ স্ট্রিমিং সার্ভিসে।

লাইভ স্ট্রিমিং ওয়েবসাইট
অনলাইনে বিশ্বকাপের খেলা দেখার নিঃসন্দেহে জনপ্রিয়তম মাধ্যম হচ্ছে বিভিন্ন ওয়েবসাইট যেখানে লাইভ স্ট্রিমিং সার্ভিস দেয়া হয়। তবে সবার আগে এটা জেনে রাখা উচিত যে ঝামেলা ছাড়া লাইভ স্ট্রিমিং উপভোগ করতে হলে সবার আগে অবশ্যই দ্রুতগতির ইন্টারনেট কানেকশন থাকা লাগবে আপনার। ডেস্কটপ, ল্যাপটপ, ট্যাব, মোবাইল মোটকথা প্রায় সব ধরনের ডিভাইসের মাধ্যমে অধিকাংশ লাইভ স্ট্রিমিং সাইটে খেলা দেখতে পারবেন আপনি।

এই বিশ্বকাপে লাইভ খেলা দেখার জন্য নির্ভরযোগ্য একটি মাধ্যম হচ্ছে ই-বক্স ওয়েবসাইট (http://free.ebox.live)। সাইটটির ফ্রি প্ল্যানের এই ইউআরএল ব্যবহার করে তুলনামূলক কম ইন্টারনেট স্পিডেও খেলা দেখতে পারবেন।

এইচডি এবং নরমাল উভয় রেজ্যুলেশনে লাইভ ফুটবল খেলা দেখার জন্য ভালো আর একটি ঠিকানা হচ্ছে রংধনু টিভি লাইভ (http://tv.rangdhanu.live)। এই ওয়েবসাইটে সনি টেন ২ এইচডি ও সনি ইসপিএন চ্যানেলে বিশ্বকাপ ফুটবল লাইভ স্ট্রিমিং সার্ভিস উপভোগ করা যাবে।

সিনেমা বাজার (http://103.81.104.222/) সাইটের স্পোর্টস ট্যাবে ক্লিক করলে বেশ কিছু খেলার চ্যানেল পাবেন। সেখান থেকে সনি টেন ২ অথবা সনি ইএসপিএন চ্যানেল সিলেক্ট করে এবারের বিশ্বকাপের খেলাগুলো দেখতে পারবেন।

এছাড়া বিডিআইএক্স স্পোর্টস (http://bdixsports.com) এবং বিডিআইপি টিভি (http://www.bdiptv.stream/) এই দুটি ওয়েবসাইটও হতে পারে অনলাইনের বিশ্বকাপ ফুটবল দেখার জন্য আপনার মোক্ষম অস্ত্র।

মোবাইল অ্যাপে বিশ্বকাপ
হাতের কাছে স্মার্টফোন থাকলে পরিস্থিতি যাই হোক না কেন বিশ্বকাপ দেখা কখনো মিস হবে না। বিশ্বকাপ ফুটবলের লাইভ স্ট্রিমিং সার্ভিসের জন্য অ্যাপ স্টোরে বেশ কয়েকটি অ্যাপ খুঁজে পাবেন। টিভি চ্যানেলগুলোর লাইভ স্ট্রিমিং লিংকের জন্য বিশ্বব্যাপী বহুল ব্যবহৃত একটি অ্যাপ হচ্ছে লাইভ নেট টিভি। গুগল প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি ইনস্টল করে নিলে বিশ্বকাপের খেলা দেখা নিয়ে আপনার দুশ্চিন্তা অনেকাংশেই কমে যাবে। অ্যাপটির স্পোর্টস সেকশনে বিশ্বের অসংখ্য স্পোর্টস চ্যানেল দেখার সুবিধা রয়েছে। সেখান থেকে বিশ্বকাপ খেলা দেখাচ্ছে এমন চ্যানেল সিলেক্ট করে নিলে সেই চ্যানেলের একাধিক লিংক পাবেন (এইচডিসহ) যেখান থেকে আপনি খেলা দেখতে পারবেন। উল্লেখ্য, একটি লিংক কাজ না করলে অপর কোনো লিংক ট্রাই করে দেখতে হবে।

ঠিক একই ধরনের সার্ভিস প্রদান করে মবড্রো নামের মোবাইল অ্যাপ যা গুগল প্লে স্টোর থেকে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে নিশ্চিন্তে ইনস্টল করে নিতে পারেন। এছাড়া প্লে স্টোর থেকে সনি লিভ অ্যাপ নামিয়ে নিতে পারেন।

স্থায়ী সমাধান মিলবে আইএসপির ওয়েবসাইটে
বাসা বা অফিসে আপনি যে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন তা কোনো না কোনো আইএসপি বা ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারের। এই আইএসপিগুলোর প্রায় প্রত্যেকটির নিজস্ব ওয়েবসাইট আছে সেখানে গ্রাহকদের জন্য লাইভ খেলা দেখার ব্যবস্থা রয়েছে। তাই বিশ্বকাপের সময়টায় নিজের আইএসপি থেকে লাইভ খেলা দেখার ওয়েবসাইট অ্যাড্রেস জেনে নিন। আপনার ওয়াইফাই বা অন্য কোনো নেটওয়ার্কে কিন্তু এই অ্যাড্রেস কাজে আসবে না। তবে বাসায় টিভি বা ডিশ-ক্যাবল কানেকশনে সমস্যা থাকলে আইএসপির ওয়েবসাইটই হবে একেবারে স্থায়ী সমাধান। তাছাড়া এখন প্রায় সব বাসায়ই ব্র্যাডব্যান্ড/ওয়াইফাই কানেকশন রয়েছে। তাই যেখানেই যান না কেন আইএসপিগুলোর লাইভ টিভি সার্ভিস হাতের নাগালেই থাকবে।

টিপস
- লাইভ স্ট্রিমিং খেলা দেখার পূর্বশর্ত হচ্ছে দ্রুতগতির ইন্টারনেট। তাই সবার আগে ফাস্ট ইন্টারনেট নিশ্চিত করুন।
- লিংকনির্ভর এই স্ট্রিমিং সাইট বা অ্যাপগুলো যে সবসময় শতভাগ কাজ করবে এমন নিশ্চয়তা নেই। তাই একটি ওয়েবসাইটে বসে না থেকে অন্যান্য এক-দুটি সাইট বিকল্প হিসেবে বুকমার্ক করে রাখুন।
- পপ-আপ অ্যাডের ঝামেলা এড়াতে ব্রাউজারে অ্যাড ব্লকার ইনস্টল করে নিতে পারেন।
- অনেক সময় ডিভাইসে ফ্ল্যাশ প্লেয়ার না থাকার কারণে ওয়েবসাইট থেকে লাইভ স্ট্রিমিং দেখা যায় না। এই বিষয়টির দিকে লক্ষ্য রাখুন।
- অনেক সময় ব্রাউজারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফ্ল্যাশ অপশন ব্লক করা থাকে। তাই ব্রাউজার সেটিং থেকে আপনার কাঙ্ক্ষিত ইউআরএলটি আনব্লক করে নিন। কোনো ব্রাউজারে তা কীভাবে করবেন তা ইন্টারনেটে সার্চ করলে সহজেই জানতে পারবেন।

- শাহরিয়ার মাহী