বুধবার,১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
হোম / জীবনযাপন / সাবধান! ‘ফ্রেন্ডজোনড’ হতে যাচ্ছেন কিন্তু!
০৫/২০/২০১৮

সাবধান! ‘ফ্রেন্ডজোনড’ হতে যাচ্ছেন কিন্তু!

-

কার্জন হলের সামনে দাঁড়িয়ে বাসের জন্য অপেক্ষা করছিল নওশাদ। পাশেই বাসের জন্য অপেক্ষা করতে থাকা জয়াকে দেখামাত্রই ভালো লেগে গেলো তার। বহু কাঠখড় পুড়িয়ে পরিচিত হলো তার সাথে। সম্পর্কটা বন্ধুত্বেও গড়ালো। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সারাদিন তার প্রোফাইল ঘাঁটে নওশাদ। আলাপচারিতা লম্বা করার জন্য হেন কোনো বিষয় নেই যা তুলে আনেনি সে। যখনই তার কোনো কৌতুকে হাসে জয়া, নিশ্বাস বন্ধ হবার জোগাড় হয় তার। নওশাদের ভাবনার পুরোটাজুড়ে জয়া চড়ে বসে সিন্দাবাদের ভূতের মতো করে। ইনিয়েবিনিয়ে অনেক চেষ্টাও করে জয়াকে মনের কথা জানানোর। কিন্তু বিধি বাম! জয়া কিছু বোঝে না, কে জানে হয়তো বুঝতে চায় না! নওশাদকে দেখে তার আর দশটা বন্ধুর মতোই!

কি? নওশাদের ঘটনাটা পরিচিত ঠেকছে? নওশাদ আর জয়া চরিত্র দুটো কাল্পনিক হলেও ঘটনাটা বিন্দুমাত্র মনগড়া নয়। নওশাদের মতো বিড়ম্বনা পোহায়নি এমন ভাগ্যবান ছেলে পাওয়া খুবই দুষ্কর।

নিজের ক্রাশের ‘ফ্রেন্ডজোনড’ হয়ে যাওয়াটা খুবই দুস্বপ্নের মতো ব্যাপার! ফ্রেন্ডজোনড হয়ে যাওয়ার আগে পরে নওশাদদের মাথায় কেবল খেলা করে ‘এতোভাবে বুঝাতে চাইছি, ইঙ্গিত দিচ্ছি, ও বুঝছে না কেনো!’ ভুলে যায় কিংবা খেয়ালও করে না জয়ারাও কিছু ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, সে তাকে শুধু বন্ধুই ভাবে। পরেরবার যখন কারো বন্ধুত্বকে অন্য কিছুর সাথে গুলিয়ে ফেলার আশংকা দেখা দেবে, ভেবে দেখবেন ওপর পক্ষ এ ইঙ্গিতগুলো দিচ্ছে কিনা। যদি দিয়ে থাকে, তবে সাধু সাবধান!

নিজের অতীত প্রেম কিংবা বর্তমান ক্রাশের কথা আপনার সাথে শেয়ার করেন
তিনি সাবলীলভাবে তার অতীতের প্রেম নিয়ে আপনার সাথে গল্প করেন। বর্তমান ক্রাশের কথা, তার সাথে কি করেন, তার ক্রাশ কি করে তাও বলে যান কোনো দ্বিধা ছাড়াই। যদি এ বিষয়ে আপনাদের মাঝে কোনো আলোচনা হয়ে থাকে তবে এটা একটা বড় ইঙ্গিত যে তিনি আপনাকে বন্ধুর চেয়ে বেশি কিছু ভাবেন না।

তিনি অন্য কারো সাথে আপনার সম্পর্ক করিয়ে দিতে চান
আপনি চাইছেন তার সাথে ডেটে যেতে আর তিনি চাইছেন অন্য কারো সাথে আপনার সম্পর্ক করিয়ে দিতে! এর মানে দাঁড়ায় যে, আপনি সিঙ্গেল থাকুন কিংবা মিঙ্গেল তার কিছু যায় আসে না, কেননা আপনার প্রতি তার কোনো রোমান্টিক অনুভূতি নেই। যত তাড়াতাড়ি ব্যাপারটা বুঝতে পারবেন তত মঙ্গল!

গ্রুপ হ্যাংআউট
যখনই আপনি কোনো মুভি দেখার কিংবা একসাথে কফি খাবার জন্য তাকে ডাকেন তিনি তার কোনো বন্ধু কিংবা বান্ধবীকে সাথে করে নিয়ে আসেন। তিনি কখনোই আপনার সাথে একাকী কিছু সময় কাটানোর কোনো প্ল্যান করেন না। এটা একটা পরিষ্কার ইঙ্গিত যে তিনি আপনাকে কেবল ‘বন্ধু’ ভাবেন, এর বেশি একচুলও না।

সম্বোধন
কাউকে খুব বেশি ভালো লেগে গেলে সাধারণত আমরা তাকে সম্বোধন করতে গেলে একটু আলাদাভাবে করি। নিজস্ব একটা ডাকনাম দিয়ে বসি। যদি আপনার ক্রাশের অনুভূতিতে আপনার প্রতি বন্ধুত্বের চেয়ে বেশি কিছু থেকে থাকে তবে আপনি আরেকটা ডাকনাম পেয়ে যেতেই পারেন। আর যদি না থাকে... বুঝতেই পারছেন নিশ্চয়ই!

উপহার/উপকার গ্রহণে অনীহা
তিনি সবসময় একটা মিডল পয়েন্টে দেখা করতে চান। আপনি তাকে বাসা থেকে আনতে যান কিংবা বাসায় ড্রপ করে দিয়ে আসেন সেটা চান না। কোথাও খেতে গেলে বিল ভাগাভাগি করে কিংবা পুরোটাই দিতে চান। আবার আপনি তাকে কিছু উপহার দিলে সেটা নিতে অস্বস্তি বোধ করেন আবার কখনো আপনাকেও কিছু দেন না। এসবের কোনো ইঙ্গিত কি এটা বুঝায় যে তিনি আপনার প্রতি ইন্টারেস্টেড? অতি অবশ্যই না! নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন!

- নেয়ামতউল্লাহ্‌
ছবিঃ এইচ এম আকিব