বুধবার,১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
হোম / ভ্রমণ / বেরিয়ে পরুন এই গরমেই
০৫/২০/২০১৮

বেরিয়ে পরুন এই গরমেই

-

গ্রীষ্মের মাঝে রোদের প্রকোপ কিংবা সর্বগ্রাসী কালবৈশাখী ভ্রমণপ্রেমিকদের দমিয়ে রাখতে পারে না। এই গরমেও বেড়াতে যাওয়া চাই। আজ আপনাদের ঢাকার আশপাশে কিছু রিসোর্টের সাথে পরিচয় করিয়ে দেই, যেখানে পরিবার কিংবা বন্ধুবান্ধবের সাথে কিছুটা সময় কাটিয়ে আসতে পারবেন, তাও গ্রীষ্মের গরমকে হার মানিয়ে।

ছুটি রিসোর্ট
বিখ্যাত ভাওয়াল রাজবাড়ি থেকে মাত্র ৩ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ছুটি রিসোর্ট। পরিবেশবান্ধব এই রিসোর্টে পর্যটকরা এক অনন্য অভিজ্ঞতা পাবে। লাক্সারি কটেজ, তাঁবু, খড়ের বাংলো, ট্রি হাউজ, বাচ্চাদের প্লে গ্রাউন্ড-এর পাশাপাশি আছে একটি সুবিশাল লেক। যেখানে আপনি বোটে চড়ে মাছ ধরতে পারবেন অথবা সাঁতার কেটে ঘুরে বেড়াবেন। প্রকৃতির মাঝে পাখির কিচিরমিচির কিংবা শিয়ালের ডাক শুনতে শুনতে আপনি রঙবেরঙের পিঠা এবং দেশি খাবার খেতে পারবেন রিসোর্টের ভেতরকার রেস্তোরাঁয়। তাছাড়া, ঘোড়ার পিঠে চড়ারও ব্যবস্থা আছে এখানে।

রাতের আঁধারে কোনোরকম কৃত্রিম আলো ছাড়া চাঁদের অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগ করতে আপনি ছুটি রিসোর্টে যেতে পারেন। ৩,০০০ থেকে শুরু করে ১০,০০০ টাকার মধ্যে রুম আছে এই রিসোর্টে। গাজীপুরের ডিসি অফিস থেকে সরাসরি আপনি আমতলি বাজার চলে যাবেন। সেখানে গেলেই আপনি পেয়ে যাবেন ছুটি রিসোর্টের রাস্তা। যাওয়ার আগে অবশ্যই তাদের সাথে কথা বলে রুম বুক করে যাবেন।

অঙ্গনা রিসোর্ট
ঢাকা বিমানবন্দর থেকে মাত্র ১ ঘণ্টা পথ পাড়ি দিলেই গাজীপুরের সূর্যনগর গ্রামের কাপাসিয়া এলাকায় নির্মাণ করা হয়েছে মনোরম অঙ্গনা রিসোর্ট। প্রকৃতির রূপের সাথে সামঞ্জস্য রেখে বেশ দক্ষতার সাথে তৈরি করা হয়েছে এই রিসোর্ট। ভাওয়ালের লাল পাহাড়ঘেঁষা এই রিসোর্ট সুউচ্চ দেয়াল দিয়ে ঘেরা এবং নিরাপত্তার জন্য বেশ জনপ্রিয়। অপরূপ সুন্দর ফুলের বাগান, পুকুর, ব্যাডমিন্টন কোর্ট, হরিণের পার্ক এবং একটি সুইমিং পুল আছে রিসোর্টের মধ্যে। বড় মিটিং করার জন্য আপনি এখানে কনফারেন্স রুমও ভাড়া করতে পারবেন। পরিবার নিয়ে থাকার জন্য আছে ১৭টি ভাল মানের রুম, যা আপনি ভাড়া নিতে পারবেন পাঁচ হাজার টাকায়। খাওয়ার ব্যবস্থাও আছে বেশ ভালো। ঢাকার বেশ কাছে হওয়ায় যাতায়েতের সমস্যা নেই।

গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলায় গিয়ে পাবুর দাইবারি রোডে গেলেই পেয়ে যাবেন এই রিসোর্ট।

রিসোট্রে রুম বুক করতে হলে যোগাযোগ করতে পারেন - +৮৮ ০১৭১১ ১৮২৬২৬, +৮৮ ০১৭১১ ৫২৭৩৭৩ অথবা লগইন করতে পারেনঃ www.anganaresort.com

ড্রিম স্কয়ার
মাওনা উপজেলার আযগিরচালা গ্রামে প্রায় ১০০ একর ভূমির উপর বিভিন্ন প্রকার ফুল এবং ফল গাছের বনের মধ্যে নির্মাণ করা হয়েছে ড্রিম স্কয়ার রিসোর্ট। রিসোর্টের মাঝে আছে সুবিশাল জঙ্গল। আছে স্থানীয় মাছ চাষের জন্য বেশ কিছু পুকুর এবং তার আশপাশেই রাত কাটানোর আধুনিক কটেজ, যার বারান্দা এবং ডাইনিং স্পেস ঝুলে আছে ঠিক পুকুরের পানির উপর।

রিসোর্টের গেট থেকে শুরু করে মূল কমপ্লেক্স পর্যন্ত যেতে আপনি পথের দুই পাশে দেখবেন সুন্দর গাছের সারি। তা ছাড়াও, রিসোর্টে আছে দুটি বিশাল লেক এবং ১৬টি পুকুর। শীতের মাঝে হরেকরকম পাখি এখানে বেড়াতে আসে, তবে গ্রীষ্মেও এর সৌন্দর্য কম নয়।

ড্রিম স্কয়ারে একদিনের জন্য কটেজ ভাড়া করতে পড়বে ৬,০০০ টাকা। রিসোর্টে যেতে হলে আপনার মাওনা উপজেলায় যেতে হবে বাস কিংবা গাড়িতে করে। সেখান থেকে ৫ কিলোমিটার দূরেই পাবেন এই রিসোর্ট।

রুম বুক করতে যোগাযোগ করুন ০১৭৫৫৬০৩৩১০, ০১৭৫৫৬০৩৩১১ অথবা Email: dreamsquareresort@gmail.com

বেশি দূরে ভ্রমণ করতে অনেকেই পছন্দ করে না। তাই পরিবার-পরিজন নিয়ে ঘুরে আসুন ঢাকার কাছে অবস্থিত এই রিসোর্টগুলোতে। গ্রীষ্মের ছুটির দিনটা কাটবে রিল্যাক্স করে।

- কাজী আমিন