সোমবার,১৯ নভেম্বর ২০১৮
হোম / রূপসৌন্দর্য / চুল কাটুন মুখের গড়ন বুঝে
০৫/০২/২০১৮

চুল কাটুন মুখের গড়ন বুঝে

-

সবার চেহারার গঠন এক নয় তাই সবার চেহারার সঙ্গে সব ধরনের চুলের স্টাইল মানায়ও না। কাউকে এক স্টাইল ভালো লাগা মানে এই নয় ওই একই চুলের স্টাইল আপনার সঙ্গেও মানিয়ে যাবে। তাই অন্যের হেয়ারস্টাইল পছন্দ হলেই সেভাবে চুল না কেটে আগে নিজের চেহারা চেহারা সম্পর্কে সঠিক ধারনা করুন। প্রথমে জানতে হবে মুখের গড়ন সম্পর্কে এবং এরপরই মানানসই হেয়ারস্টাইল বেছে নিতে হবে।

গোলাকার মুখে
এই গড়নের মুখের গঠনের সঙ্গে চুল পিছনের দিকে টেনে আঁচরালে চেহারা কিছুটা ওভাল শেপ দেখাবে। এতে করে তাদের দেখতে সুন্দর লাগবে। যদি ব্যাংস করতে চান তবে চোখের নিচ পর্যন্ত লম্বা করে কাটবেন। যদি আপনার চুল ছোট হয় তাহলে লেয়ারস করতে পারেন। এর ফলে আপনার চেহারা কিছুটা লম্বা দেখাবে। আর চুল কাটার সময় খেয়াল রাখতে হবে, যেন কানের দুই পাশের অংশ একটু চাপা দেখায়। মাথার ওপরের ও সামনের অংশের চুল অপেক্ষাকৃত বড় ও খাড়া রাখতে হবে। কোকড়া চুলের ক্ষেত্রে গোলাকার মুখের সঙ্গে কখনওই ছোট চুল রাখা উচিত নয়, এতে মুখ আরও ভরা দেখাবে।

ওভাল শেপ
এই শেপের মেয়েদের হেয়ার স্টাইল নিয়ে চিন্তার কোনো কারণ নেই। এরা যেমন ভাবেই চুলের স্টাইল করুক না কেন তাদের সুন্দরভাবে মানিয়ে যায়। তাই তাদের জন্য বিশেষ কোনো টিপস নেই। লম্বা ঢেউ খেলানো চুল যেমন মানাবে তেমনি চাইলে ঘাড় পর্যন্ত চুলও সুন্দর লাগে এমন মুখের গড়নে। এক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে পারেন কপালের আকারের দিকে। কপাল চওড়া হলে সামনে ব্যাংস কেটে নিন।

চারকোণা মুখে
যদি আপনি এই শেপের অধিকারী হয়ে থাকেন তবে আপনার চুল লম্বা হলেই বেশি মানাবে। এই শেপে দেখা যায় চিবুকের অংশটা বেশি প্রশস্ত হয়। তাই সামনের দিকে খানিকটা লেয়ার করা চুল চিবুকের প্রশস্ততা কমিয়ে আনে। যদি আপনার চুল ছোট হয়ে থাকে তাহলে চুল পেছন থেকে গোল করে কাটুন, পারলে কার্ল করুন। আর লম্বা চুলে ব্যাংস কেটে ভিন্ন লুক দিতে পারেন। এতে করে সবার নজর আপনার কপালের অংশে থাকবে। লেয়ার হেয়ার কাটিং আয়তাকার মুখের জন্য সবচেয়ে ভালো।

হার্ট শেপ
যাদের কপালের অংশ প্রশস্ত আর চিবুকের কাছটা তীক্ষ্ণ তাদেরকে এই শেপের অধিকারী বলা যায়। তাই সব সময় এমন স্টাইল করতে হবে যেটাতে কপাল ঢাকা থাকে। যেমন ব্যাংস, চাইনিজ কাট। চুল যদি ছোট হয় সেক্ষেত্রে সেগি, বব কাট মানাবে ভালো। পিছনে লেয়ার করে সামনে ব্যাংসও এই ধরনের মুখের গড়নের সঙ্গে মানিয়ে যায়।

লম্বাটে মুখে
লম্বাটে মুখে ফ্ল্যাট আয়রন ব্যবহার করা থেকে দূরে থাকবেন। কারণ এতে আপনাদের মুখটা আরো লম্বা দেখাবে। ফ্রন্ট লেয়ার করে পেছনে স্টেপ কাট করতে পারেন অথবা পার্টিতে যাওয়ার সময় কার্ল করতে পারেন। চুল টেনে না বাঁধাই ভালো। এতে মুখ আরও লম্বাটে লাগবে।

ডায়মন্ড শেপ
এদের দেখতে অনেকটা ওভাল শেপের মতো লাগে। এদের মুখ যতটা না প্রশস্ত তার চেয়ে বেশি লম্বা। হেয়ার স্টাইল করার সময় কপাল ও থুতনির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে এমন চুলের স্টাইল করতে হবে, যাতে গালের হাড় ছোট দেখায়। ইমো এবং লেয়ার কাট আপনাদের সবচেয়ে বেশি মানাবে। ব্যাংস করতে চাইলে খেয়াল রাখবেন সেটা যেন বেশি ছোট না হয়। সামনে একটু ফুলিয়ে পেছনে পনিটেইল করতে পারেন, চুল টেনেও বাঁধতে পারেন।

- অদ্বিতী