বুধবার,২৩ মে ২০১৮
হোম / অন্দর-বাগান / ঘরে আনুন প্রশান্তির ছোঁয়া
০৪/২৬/২০১৮

ঘরে আনুন প্রশান্তির ছোঁয়া

-

সারাদিনের কোলাহল, ব্যস্ততা আর ক্লান্তির পর সবাই নিজ ঘরে ফিরে আসে। কিন্তু দিনশেষে ফিরে আসা নীড়টি যদি নিজের মনমতো সাজানো গোছান ও পরিপাটি না হয় এবং এতে যদি প্রশান্তির ছাপ না থাকে তবে তা যে কারো মনের উপর চাপ সৃষ্টি করবে। বাসা যদি সুন্দর করে সাজানো থাকে তবে তা আপনার মন ভালো করে দিতে পারে নিমিষেই আর এর জন্য যে আপনাকে খুব বেশি অর্থ খরচ করতে হবে এমনটাও নয়। একটুখানি চেষ্টা ও সাধারণ কিছু নিয়মেই আপনার বাসাটিতে নিয়ে আসতে পারেন প্রশান্তির ছোঁয়া।

অতিরিক্ত কিছু নয়
বাসার যে কোনো ঘর সাজানোর আগে ঘরের আকার মাথায় রেখে ফার্নিচার ও সাজানোর জিনিস নির্বাচন করতে হবে। ঘরের আকার বড় হলে এর জন্য বড় আকারের ফার্নিচার নির্বাচন করতে পারেন। তবে ঘরে অপ্রয়োজনীয় কোনো আসবাবপত্র না রাখাই ভালো। এতে যেমন আপনার ঘর পরিষ্কার করতে সুবিধা হবে তেমনি ঘরে হাঁটাচলা করতে পারবেন।

সর্বদা ঘর পরিষ্কার রাখুন
অপরিষ্কার ঘরে বসবাস করলে নানারকম রোগে আক্রান্ত হওয়ার পাশাপাশি মেজাজ খিটমিটে হয়ে থাকতে দেখা যায়। ধুলোবালিমুক্ত সাজানো ঘর সহজেই যে কারো মনে প্রশান্তি বয়ে নিয়ে আসে। তাই নিয়মিত ঘর পরিষ্কার করুন ও জিনিসপত্র ঘরে এদিক ওদিক ছড়িয়ে ছিটিয়ে না রেখে নির্দিষ্ট জায়গায় রাখুন।


আলোর ব্যবহার
নানারকম আলোর ব্যবহার মানুষের মুড নিয়ন্ত্রণ করতে পারে সহজেই। ঘরে সবসময় বাইরের আলো বাতাস আসার ব্যবস্থা রাখুন। রাতের বেলা ঘর আলোকিত করতে মোমবাতি ব্যবহার করতে পারেন। এতে শুধু আপনার মনে প্রশান্তির ছাপ পড়বে না, আপনার ঘরের সৌন্দর্যও বেড়ে যাবে বহু গুণ। ইলেকট্রিক আলো যাতে সরাসরি চোখে না লাগে সেজন্য নানারঙের শেড ব্যবহার করতে পারেন। এতে ঘর আলোকিত হবে ঠিকই কিন্তু অতিরিক্ত আলো চোখে লাগবে না।

রঙের ব্যবহার
ঘরে নানা রঙের ব্যবহার, কোনো রঙের আধিক্য কিংবা কমতি আপনার মনের ওপর গুরুতর প্রভাব ফেলতে পারে। ঘরে যদি অতিরিক্ত লাল রঙ ব্যবহার করা হয়ে থাকে তবে তা যে কারো মেজাজ চড়া করে দিবে সহজেই। আবার বিজ্ঞানীদের মতে সবুজ রঙ বা সবুজের যে কোনো শেড চোখের জন্য ভালো এবং এটি মানসিক প্রশান্তিও নিয়ে আসে। তাই ঘরের দেওয়াল ও আসবাবপত্রে হালকা রঙ ব্যবহার করুন।

জাঁকজমকপূর্ন বেডরুম নয়
বেডরুমে আভিজাত্যের ছোঁয়া থাকতে পারে তাই বলে অতিরিক্ত জাঁকজমকপূর্ণ কোনো কিছু বেডরুমে রাখা উচিত নয়। বেডরুমে অতিরিক্ত ইলেকট্রনিকস এর জিনিস ও উজ্জ্বল আলো ব্যবহার করা উচিত নয়। বেডরুমের পরিবেশে হালকা রঙ বজায় রাখুন। ছোট টি-টেবিল অথবা ইজিচেয়ারের সাথে কোমল রঙের কার্পেট রাখা যেতে পারে।

প্রকৃতির ছোঁয়া
প্রকৃতিই যেন কোমলতার প্রতীক। শহুরে ব্যস্ত এই জীবনে অ্যাপার্টমেন্ট বিল্ডিং-এর ঘরে সবার পক্ষে বাগান তৈরি করা সম্ভব না। তাই মন ভালো রাখতে প্রতিটি ঘরে অল্প কিছু সবুজের ছোঁয়া রাখুন। বারান্দায় রাখুন টবের গাছ কিংবা অর্কিড। ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধির পাশাপাশি দেবে অক্সিজেনের সরবরাহ ও আপনার মনকেও শান্ত রাখতে সাহায্য করবে।

- মিম