শুক্রবার,২০ অক্টোবর ২০১৭
হোম / রূপসৌন্দর্য / বর্ষায় স্নিগ্ধ সাজ
০৮/১৭/২০১৭

বর্ষায় স্নিগ্ধ সাজ

-

ঈদের আমেজ সবে শেষ হলো। ঈদের কয়েকদিন আগে হতে শুরু করে এখন পর্যন্ত বৃষ্টি থামার কোনো নামই নেই। হঠাৎ আকাশ ভেঙে বর্ষণ আবার হঠাৎ সারাদিন টিপটিপ বৃষ্টি। ঈদ শেষ হয়ে গেলেও উৎসবের শেষ তো আর এখানেই নয়, এই সময়টাতেই ঈদ পুনর্মিলনীসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যাওয়ার আমন্ত্রণ থাকে এবং বৃষ্টির কারণে উৎসবের আমেজ থেমে থাকে না। সেজেগুজে যেতেই হবে সব অনুষ্ঠানে, তবে অবশ্যই বর্ষা ঋতুতে নিজেকে মনোমতো সাজানোর আগে মাথায় রাখতে হবে আবহাওয়ার ব্যাপারটি।

১। বর্ষায় সূর্যের মুখ দেখা না গেলেও এর ক্ষতিকারক দিকগুলো ঠিকই বিদ্যমান থাকে। এ-কারণে ইউভি-এ ও ইউভি-বি রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করতে নিয়মিত ব্যবহার করতে হবে এসপিএফ সমৃদ্ধ সানস্ক্রিন। যদি বেশিক্ষণ বাড়ির বাইরে থাকতে হয় তাহলে সঙ্গে সানব্লকও ব্যবহার করুন।

২। কমপ্যাক্ট পাউডার সম্পূর্ণভাবে এড়িয়ে চলুন এবং ইনস্ট্যান্ট টাচ-আপের জন্য সবসময় সঙ্গে রাখুন টিস্যু। এতে আপনার মুখ বেমানান দেখাবে না। তৈলাক্ত ত্বকের ক্ষেত্রে অবশ্য ভারি ফাউন্ডেশনের চেয়ে কমপ্যাক্ট পাউডার ব্যবহার করাই শ্রেয়।

৩। ওয়াটারপ্রুফ মাসকারা মেকআপের ক্ষেত্রে একটি পারফেক্ট আনুষঙ্গিক। চোখে অন্য কোনো মেকআপের ছোঁয়া লাগান আর না-লাগান, শুধু মাসকারা লাগিয়ে চোখের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলতে পারেন। এছাড়া হালকা একটু নীল, সবুজ বা ধূসর রঙের জেল লাইনার দিয়ে এঁকে নিতে পারেন চোখ দুটি। চোখের পাতার উপরের অংশে আই লাইনার লাগালে একটু স্মাজ করে দিন।

৪। বর্ষা মানে শুধু বৃষ্টি নয়, এর পরবর্তী ভ্যাপসা গরমে স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়াও। তাই মেকআপ নেয়ার আগে ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ভালোভাবে ধুয়ে নিন এবং এরপরে সারা মুখ বরফে ঘষে নিন। এতে ভ্যাপসা বাতাসে ঘেমে যাওয়ার প্রবণতা কমবে।

৫। ব্লাশ বা ব্রোঞ্জার প্রয়োগের পরে মুখে হালকা ক্রিমের ছোঁয়া লাগিয়ে নিন পাউডারের পরিবর্তে, এতে আর্দ্র আবহাওয়ায় আপনার কনট্যুরিং টিকবে বেশিক্ষণ। হালকা ব্লাশ-অন এ-ঋতুতে উপযুক্ত এবং এরজন্য অবশ্যই হালকা রং বেছে নিবেন।

৬। ঠোঁটের সাজে লিপস্টিকের পরিবর্তে বেছে নিন ম্যাট লিপগ্লস, যাতে ঠোঁট থাকে বরাবরের মতোই আকর্ষণীয়। গ্লস একদম ব্যবহার না করলে ফ্রস্টেড লিপস্টিক বা ম্যাট ফিনিশ বেছে নিন। দিনের বেলার জন্য গোলাপি বা হালকা বাদামি এবং রাতের জন্য লাল, কমলা বা ম্যাজেন্টা রং উপযুক্ত।

মনে রাখুন

- ওয়াটারপ্রুফ মেকআপ অনেকক্ষণ টিকে থাকে, কিন্তু তার মানে এটি পানিতে মুখ ধুয়ে উঠানোটাও খুব সহজ ব্যাপার নয়। তাই মেকআপ কেনার সময় একটি ভালো মেকআপ রিমুভারও কিনে নিন।

- সারাদিনের জন্য বের হলে পারফিউম বা ডিওডরেন্ট সঙ্গে রাখুন। কেননা বর্ষায় গুমোট আবহাওয়ার কারণে শরীরে দুর্গন্ধ হতে পারে।

- নিত্যদিনের সঙ্গী হিসেবে বেছে নিন ছাতাকে, ফোল্ডিং ছাতা হলে সবচেয়ে ভালো। কেননা তা বহন করা সহজ। ছাতার ব্যবহার ঝুম বৃষ্টির দিনগুলোতে আপনার মেকআপের স্থায়িত্ব বাড়িয়ে দিবে।

- কাজল, আই লাইনার, ফাউন্ডেশন প্রভৃতি ওয়াটারপ্রুফ হলে ভালো হয়।

- ন্যুড লুকের জন্য প্রথমেই একটি ভালো ফাউন্ডেশন বেছে নিন। ফাউন্ডেশন নির্বাচনের ক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে যেন ত্বকের সঙ্গে মানানসই হয়। অতিরিক্ত হাল্কা অথবা গাঢ় শেড ব্যবহার করলে ন্যাচারাল লুক আসবে না।

- মেকআপের শুরুতেই প্রাইমার লাগিয়ে নিন।

- কনট্যুর করতে চাইলে পাউডার কনট্যুর করাই ভালো। ক্রিম কনট্যুরে মেকআপ ভারি দেখাতে পারে। মেকআপ দীর্ঘস্থায়ী করার জন্য সেটিং স্প্রে ব্যবহার করতে পারেন।

- চোখের মেকআপের ক্ষেত্রে হাল্কা পিচ অথবা গোলাপি রং নির্বাচন করুন। শ্যামবর্ণ হলে খয়েরি শেডের আই শ্যাডো মানাবে বেশি। চোখের নিচে হাল্কা করে কাজল দিতে পারেন। তবে মাশকারা ঘন করে লাগান।

- হাইলাইটার ব্যবহার না করাই ভালো। তবে হাইলাইট করতে চাইলে কনসিলার দিয়ে বেস মেকআপের সঙ্গে হাইলাইট করে ফেলুন। ব্লাশের জন্য গোলাপি অথবা পিচ শেড ব্যবহার করুন।

- ভ্রু ডিফাইন করার জন্য আইব্রাও পেন্সিল ব্যবহার করুন। পেন্সিলের রঙ নির্বাচনের ক্ষেত্রে খেয়াল রাখুন যেন তা আপনার ভ্রু-এর কাছাকাছি রঙের হয়।

- ঠোঁটের জন্য পিঙ্ক, ব্রাউন, পিচ শেডের ম্যাট ন্যুড ব্যবহার সময় উপযোগী।

- নুসরাত ইসলাম