শুক্রবার,২৪ নভেম্বর ২০১৭
হোম / রূপসৌন্দর্য / ঠোঁটের যত্নে স্ক্রাব
০৭/৩০/২০১৭

ঠোঁটের যত্নে স্ক্রাব

-

এক্সফলিয়েট করা ঠোঁটের মসৃণতা বজায় রাখার জন্য জরুরি। এক্সফলিয়েশান মৃত কোষ মুছে ফেলে এবং ঠোঁটের আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে।

ঠোঁটের জন্য ব্যবহার করা যায় এরকম অনেক এক্সফলিয়েটিং স্ক্রাব বাজারে পাওয়া যায়। কিন্তু ঘরোয়া রেসিপি দিয়ে তৈরি করা কিছু স্ক্রাব আছে যেগুলোতে কোনো কেমিক্যাল থাকে না এবং এগুলো বানানোও অনেক সহজ।

এরকম কিছু ঘরে তৈরি স্ক্রাবের মধ্যে রয়েছে -

জলপাই তেল এবং কফির স্ক্রাব
জলপাই তেল এবং কফি সমান পরিমাণে মেশান ও একটি পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্টটি হালকাভাবে ঠোঁটে লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন। ৩-৪ মিনিটের জন্য রেখে ঈষদুষ্ণ গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

মধু এবং চিনির স্ক্রাব
এক অংশ চিনি ও দুই অংশ মধু মেশান। মেশানো চিনি ও মধু হালকাভাবে আপনার ঠোঁটে লাগান। ২-৪ মিনিট রাখুন। একটি কটন কাপড় ঈষদুষ্ণ গরম পানিতে ভেজান। এই কাপড়টি দিয়ে আপনার ঠোঁটকে হালকাভাবে মুছে নিন।

কাঁচা হলুদ ও দুধের স্ক্রাব
দুধের সাথে হলুদগুঁড়া মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করতে হবে। ঠোঁট ভালোভাবে ভিজিয়ে নিয়ে নরম ব্রাশের সাহায্যে ঠোঁট ঘষে নিতে হবে। এরপর সামান্য পেস্ট ঠোঁটে লাগিয়ে দুই-তিন মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। তারপর ঠোঁট ধুয়ে শুকিয়ে যাওয়ার পর লিপ বাম লাগাতে হবে।

অলিভ অয়েল
অলিভ অয়েলে রয়েছে ভিটামিনসহ বিভিন্ন খনিজ উপাদান। প্রতিদিন ঘুমানোর পূর্বে ঠোঁটে অলিভ অয়েল লাগিয়ে ঘুমালে ঠোঁট কোমল হয়।

বেকিং সোডা
বেকিং সোডা ও পানি ভালোভাবে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্টটি ২ মিনিটের জন্য ঠোঁটে লাগিয়ে ঈষদুষ্ণ গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এক্সফলিয়েট করার পর ঠোঁটকে সঠিকভাবে ময়শ্চারাইজ করা অত্যন্ত জরুরি। ময়শ্চারাইজার হিসেবে লিপ বাম অথবা ভ্যাসলিন ব্যবহার করতে পারেন।

নরম, সুন্দর, মসৃণ ঠোঁটের জন্য ভালো কোনো লিপ বাম অবশ্যই ব্যবহার করবেন। এটি আপনার ঠোঁটের আর্দ্রতা রক্ষা করবে ও ঠোঁট ফাটার সমস্যা থেকেও মুক্তি দিবে।

এক্সফলিয়েশান আপনার ঠোঁটকে নরম ও মসৃণ করে তোলে, কিন্তু অতিমাত্রায় এক্স ফলিয়েশন ঠোঁট শুকিয়ে ফেলতে পারে। সপ্তাহে এক থেকে দুবার এক্সফলিয়েট করা যথেষ্ট।

মনে রাখবেন, মুখের ও শরীরের ত্বকের তুলনায় ঠোঁটের ত্বক অন্তত তিনগুণ বেশি সংবেদনশীল এবং নরম। তাই ঠোঁটের সঠিক যতœ করা বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ।

- সামা রহমান
ছবিঃ নীল ভৌমিক