শুক্রবার,২০ অক্টোবর ২০১৭
হোম / জীবনযাপন / ঈদে পরিবারকে সময় দিন
০৬/১৯/২০১৭

ঈদে পরিবারকে সময় দিন

-

ব্যস্ত এই জীবনে পরিবারের সঙ্গে কিছু সুন্দর সময় কাটানোর সুযোগ খুব কম। মা-বাবা কিংবা তাদের সন্তানরা সবাই নিজেদের কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকে। ঈদের ছুটি, বিশেষ করে ঈদের দিনটি পরিবারকে সময় দেওয়ার উপযুক্ত সুযোগ। অনেকেই ঈদের সারাটা দিন বাইরে কিংবা বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিয়ে কাটিয়ে দেন। পরিবারের আর সকলের সঙ্গে কিছু সুন্দর স্মৃতি গড়ে তুলতে ঈদের দিনটি কাজে লাগান।

একসঙ্গে নামাজে যান
ঈদের দিনটিই শুরু হয় ঈদের নামাজ পড়ার মধ্য দিয়ে। ঈদের নামাজ পড়তে যান না এমন মানুষ নেই। আলাদা আলাদাভাবে কিংবা ভিন্ন ভিন্ন মসজিদে নামাজ পড়তে না গিয়ে সবাই মিলে একসঙ্গে একই মসজিদে নামাজ পড়তে যান। মানসিক প্রশান্তির পাশাপাশি পারিবারিক অন্তরঙ্গতাও বাড়বে।

একসঙ্গে খেতে বসুন
বর্তমান সময়ের বেশিরভাগ পরিবারই ছোট আর কর্মব্যস্ততায় ভরা। পরিবারের একেকজন মানুষ একেক সময় বাসায় থাকেন। কেউ কেউ বাইরে কিংবা অফিসেই খাবার খেয়ে থাকেন। পরিবারের সব সদস্য একসঙ্গে বসে খাওয়াদাওয়া করেন না বললেই চলে। তাই ঈদের দিন বাইরে না থেকে চেষ্টা করুন অন্তত একবেলা বাসার সবার সঙ্গে খেতে বসার। এতে আপনার পরিবার যেমন খুশি হবে, আপনিও আপনার পরিবারের আনন্দের অংশ হতে পারবেন।

ঈদ অনুষ্ঠান উপভোগ করুন
ঈদ উপলক্ষে টিভিতে নানারকম নাটক ও বিশেষ অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা হয় যেগুলো আপনি পুরো পরিবারের সঙ্গে বসে উপভোগ করতে পারেন। পরিবারের কে কি কি পছন্দ করে, কার চাহিদা কি রকম এই বিষয়গুলো আপনি জানতে পারবেন। কোনো একটা অনুষ্ঠান দেখার সময় পরিবারের সদস্যরা নানারকম মন্তব্য করতে পারে। মতামত বিনিময়ের মাধ্যমে পরিবারের সবার সঙ্গে আপনার বোঝাপড়া হবে।

একসঙ্গে ঘুরতে যান
ব্যস্ততার কারণে পরিবারের সঙ্গে ঘুরতে যাওয়া খুব একটা হয়ে ওঠে না। ঈদের ছুটিতে সপরিবারে চলে যেতে পারেন কোন পছন্দসই জায়গায়। কর্মব্যস্ত জীবনের একঘেয়েমিতা যেমন কেটে যাবে পাশাপাশি নতুন কিছু অভিজ্ঞতাও পাবেন।

গুরুজনদের সময় দিন
দাদা-দাদি, নানা-নানি ও পরিবারের আর সব গুরুজনদের সঙ্গে মূলত ঈদের সময়টাই দেখা হয়। এসময় অন্যান্য কাজে ব্যস্ত না থেকে চেষ্টা করুন তাদের পাশে বসার। তাদের সঙ্গে গল্প করুন, নিজের অনুভূতি ও অভিজ্ঞতাগুলো শেয়ার করুন, তাঁদেরও বলুন নিজেদের জীবনের গল্পগুলো শেয়ার করতে। তারা যেমন খুশি হবে আপনিও তাদের কাছ থেকে অনেক সুন্দর ও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জানতে পারবেন।

সন্তানদের নিয়ে বসুন
বাবা-মা দুজনই চাকরিজীবী হয়ে থাকলে তাদের সন্তানেরা বেশিরভাগ সময়ই একাকিত্বে ভোগে। সন্তান ও বাবা-মার মধ্যে স্বাভাবিকভাবেই একটা দূরত্বের সৃষ্টি হয়। তাই ঈদের দিনটি কাজে লাগান, নিরিবিলিতে সন্তানদের নিয়ে বসুন। তাদের ভালো লাগা, মন্দ লাগা, তাদের আনন্দ কিংবা সমস্যাগুলো মন দিয়ে শুনুন। তাদের যে কাজগুলো করতে ভালো লাগে, সে কাজগুলো তাদের সাথে করুন। একসঙ্গে কোন মজার খেলাধুলায় মেতে উঠুন।

আয়োজন করুন ঘরোয়া খেলাধুলার
সারাদিন যদি একান্তই পরিবারকে সময় দেওয়া সম্ভব না হয় তবে সন্ধ্যা কিংবা রাতের সময়টা পরিবারের জন্য বরাদ্দ করে দিন। সবাই একসঙ্গে বসে আড্ডা, গান ও গল্পে মেতে উঠুন। নানারকম ঘরোয়া খেলারও আয়োজন করা যেতে পারে, তবে খেয়াল রাখতে হবে এতে যাতে বাসার শিশুরাও অংশ নিতে পারে। সবার অংশ গ্রহণ আর আনন্দ ভাগাভাগির মাধ্যমেই ঈদের দিনটি সুন্দর হবে।

- রাজিয়া সুলতানা