বুধবার,২৬ Jul ২০১৭
হোম / বিবিধ / ‘ইয়ং গ্লোবাল লিডার’ মালিহা কাদির
০৬/০৮/২০১৭

‘ইয়ং গ্লোবাল লিডার’ মালিহা কাদির

-

আপাতদৃষ্টিতে বাংলাদেশে নারী উদ্যোক্তা বা ব্যবসায়ীর সংখ্যা কম হলেও এ ধরনের ক্ষেত্রে নারীদের সাফল্যের হার দিনে দিনে বেড়ে চলছে। পশ্চাৎপদ অবস্থা থেকে নারীর অগ্রযাত্রার পথে নতুন সংযোজোন মালিহা কাদির। অনলাইনে টিকিট সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ‘সহজ ডটকম’-এর প্রতিষ্ঠাতা ব্যবস্থানা পরিচালক মালিহা কাদির সম্প্রতি ‘ইয়ং গ্লোবাল লিডার্স ক্লাস অব-২০১৭’ পুরস্কার পেয়েছেন। আন্তর্জাতিকমানের এই পুরস্কার যেমন দেশের তথ্য-প্রযুক্তি ক্ষেত্রে অগ্রগতির পরিচায়ক, তেমনি বিভিন্ন মূলধারার পেশায় নারীর সাফল্যের উজ্জ্বল উদাহরণও বটে।

ইয়ং গ্লোবাল লিডার্স ক্লাস অব-২০১৭ ও মালিহা কাদির
ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের তত্তাবাবধানে উদ্ভাবনী, উদ্যোগী এবং সামাজিক সংস্কারে অবদান রেখেছেন এমন ব্যক্তিবর্গকে তাদের কাজের স্বীকৃতি হিসেবে প্রতিবছর এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। বছরজুড়ে অনূর্ধ্ব চল্লিশ বছরের উদ্যমী নারী-পুরুষদের কাজ ও সমাজে তার প্রভাব বিবেচনা করে মূলত এই পুরস্কারের দেয়া হয়। এরই অংশ হিসেবে সম্প্রতি ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের ওয়েবসাইটে মালিহা কাদেরের নাম ঘোষণা করা ইয়েছে। ফোরামের দক্ষিণ এশিয়া ক্যাটাগরিতে এই পুরস্কার প্রাপ্ত তিনিই একমাত্র বাংলাদেশি নাগরিক। পাঠক এই পুরস্কারের মর্যাদা আরো ভালভাবে অনুধাবন করতে পারবেন যখন জানবেন যে বর্তমান ও সাবেক ইয়ং গ্লোবাল লিডারস পুরস্কার প্রাপ্তদের মধ্যে রয়েছেন Fortune ৫০০ কোম্পানির পরিচালক, অলিম্পিক পদকজয়ী এবং বিভিন্নক্ষেত্রে একাডেমিক পুরস্কারপ্রাপ্ত গুণী ব্যক্তিবর্গ। মালিহা কাদের মূলত সহজ ডটকম-এর কার্যক্রমের জন্য এই পুরস্কার পেয়েছেন। অনলাইন এবং মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে বাস, লঞ্চ, ইভেন্টস, সিনেমা কিংবা ক্রিকেট ম্যাচের টিকিট বিক্রি করে সহজ ডটকম। ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত এই প্রতিষ্ঠানটি টিকিটসংক্রান্ত জটিলতা অনেকাংশেই কমিয়েছে এবং গ্রাহকদের কাছ থেকে বিগত দিনগুলোতে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জনে সক্ষম হয়েছে। ইতোমধ্যে সহজ ডটকম স্বল্প পরিসরে ৪০টিরও বেশি প্রথম সারির বাস অপারেটর এবং ২০টিরও বেশি লঞ্চ অপারেটরকে ডিজিটালাইজ করতে সক্ষম হয়েছে। সহজ ডটকমের এহেন সাফল্যের অন্যতম নেপথ্যের কারিগর মালিহা কাদের প্রসঙ্গে ইয়ং গ্লোবাল লিডারসের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে যে- ‘মালিহা এম.কাদির বাংলাদেশের পরিবহন খাত ডিজিটালকরণে যুগান্তকারী ভূমিকা রেখেছেন।’ মালিহার এমন ভূয়সী প্রশংসার পাশাপাশি তাকে পাঁচ বছর মেয়াদী একটি লিডারশিপ প্রোগ্রামেও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

এত অর্জনের মালিক যিনি সেই মালিহা কাদের সম্পর্কে একটু বিস্তারিত জানা যাক এবার। হার্ভাড গ্র্যাজুয়েট মালিহা সহজ ডটকম প্রতিষ্ঠার পূর্বে সিঙ্গাপুরের নামকরা কোম্পানি ভিস্তা প্রিন্ট-এর ডিজিটাল পণ্যের পরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এর আগে তিনি সিনিয়র বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার হিসেবে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কোম্পানি-নোকিয়ার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। এছাড়া কর্মজীবনের শুরুতে তিনি নিউইয়র্ক ও সানফ্রান্সিসকোতে একজন এনালিস্ট হিসেবেও কাজ করেছেন। হার্ভার্ড ছাড়া শিক্ষাজীবনে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের স্মিথ কলেজ থেকে অর্থনীতি ও কম্পিউটার সাইন্সে সম্মান ডিগ্রি অর্জন করেন। উদ্ভাবনী ক্ষমতাসম্পন্ন মেধাবী নারী ভবিষ্যতে দেশের সামাজিক সমস্যা সমাধানের নিত্যনতুন উপায়ের মাধ্যমে আরো অসংখ্য পুরস্কার পাবেন বলে আশা করা যায়।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে এই পুরস্কার প্রাপ্তদের মধ্যে ৫৪ শতাংশই নারী। নানা প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে বাংলাদেশসহ উন্নয়নশীল দেশে মালিহা কাদিরের মতো নারীরা নিজদের মেধা ও দূরদর্শী মনোভাবের মাধ্যমে সমাজের উপকারে নিয়োজিত রয়েছেন। নারীর এই অগ্রযাত্রা বরাবর অব্যাহত থাকুক, এগিয়ে চলুক সারা বিশ্ব।

- নাইব রিদোয়ান