সোমবার,২৩ অক্টোবর ২০১৭
হোম / অন্দর-বাগান / ইফতার পার্টির নিয়মকানুন
০৬/০৩/২০১৭

ইফতার পার্টির নিয়মকানুন

-

রমজান মাসজুড়ে বেশির ভাগ দিনই ইফতারের দাওয়াত থাকে। কখনো বন্ধু বা আত্মীয়ের বাড়িতে ছোট ঘরোয়া আয়োজন আবার কোনোদিন বড় কোনো হোটেলে ইফতার পার্টি।

ইফতার অনুষ্ঠানের আয়োজন যে-পরিসরেই হোক না কেন, হোস্ট এবং গেস্ট দু পক্ষেরই সেখানে কিছু এটিকেটস মানতে হয়। চলুন জেনে নেয়া যাক।

মনে রাখতে হবে, ইফতার পার্টি একটি অনুষ্ঠানের অংশ। এ ব্যাপারটি মাথায় রেখে সাজপোশাক করুন। পোশাকের ক্ষেত্রে সুতি, তাঁত বা জামদানি শাড়ি বা সুতি সালোয়ার-কামিজই বেছে নিন। পোশাকের রং-এর সঙ্গে মিল রেখে সাজুন। যদিও সন্ধ্যার পার্টি তারপরও সাজে মার্জিতভাব বজায় রাখুন, হালকা মেকআপ করুন।

মাগরিবের আযানের সাথে সাথেই ইফতারের সময় শুরু হয়ে যায়। ইফতারের অন্তত আধা ঘণ্টা আগে পৌঁছনো ভালো। সম্ভাব্য ট্রাফিক জ্যাম বিবেচনা করে প্রস্তুত হতে হবে।

বাড়িতে বা কমিউনিটি সেন্টারে দাওয়াত আয়োজন করলে সেখানে নামাজ আদায় করার সুবন্দোবস্ত করাটা জরুরী। এক্ষেত্রে পুরুষ-নারী উভয়ের জন্য নামাজের জায়গা, জায়নামাজ ইত্যাদির সাথে সাথে কিবলার পরিষ্কার নিদর্শন রাখা গৃহকর্তার কর্তব্য। নারীদের জন্য স্কার্ফ বা চাদরও রাখা যেতে পারে। অসুস্থ এবং বয়স্কদের কথা মাথায় রেখে চেয়ার জাতীয় কিছুর ব্যবস্থাও রাখা দরকার।

ইফতার পরিবেশনের ব্যবস্থা এমন হওয়া দরকার যেন সূর্যাস্তের সাথে সাথেই সকল অতিথি একসাথে রোজা ভাঙতে পারে। সেজন্য পানি, শরবত, খেজুর সুবিধাজনক জায়গায় রাখা দরকার। বেশি মানুষের আয়োজনে প্লেটে প্লেটে ইফতার সাজিয়ে রাখা যেতে পারে। তবে সেক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে কোনো পদ যেন বাদ পড়ে না যায়। আবার একসাথে সব দিতে গিয়ে প্লেট যেন খাবারের স্তূপে পরিণত না হয়। তখন খাবার নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা যেমন থাকে আবার মেহমানের খাওয়ারও সন্তুষ্টি থাকে না। সাজানো প্লেটে ইফতার পরিবেশন করলেও অতিথিরা যেন দ্বিতীয়বার খাবার নিতে পারেন সেই ব্যবস্থা রাখা দরকার। আর মেহমানের সংখ্যা দু’চার পাঁচজন হলে বুফে না করে বিভিন্ন পদ সুন্দর করে বেড়ে চেয়ার টেবিলে বসার আয়োজন রাখলেই ভালো।

ইফতার পার্টি সব বয়সের এক উৎকৃষ্ট মিলনমেলা। আত্মীয়-স্বজন-বন্ধুবান্ধব, ছোটবড় সকলেই এর আনন্দ সমানভাবে ভাগ করে নিতে পারেন। উপাদেয় ইফতার মেন্যু থেকে শুরু করে এক কাতারে এক সময়ে নামাজ আদায় করা এবং নানারকম গল্প আলাপ ইত্যাদি সব কিছুরই ব্যবস্থা ইফতার পার্টিতে সমানযোগে রাখা যেতে পারে।

- ফাবিহা ফারজিন