বুধবার,২৬ Jul ২০১৭
হোম / রূপসৌন্দর্য / অ্যান্টি-এজিং ও কিছু ভুল ধারনা
০৫/১৫/২০১৭

অ্যান্টি-এজিং ও কিছু ভুল ধারনা

-

কেউই চাইবে না বয়সের আগেই বুড়িয়ে যেতে। আবার তারুণ্য ধরে রাখতে আমরা প্রতিদিন কত নিয়মই না মেনে চলি, কত প্রোডাক্ট, কসমেটিকসই না ব্যবহার করি। কিন্তু নিয়ম মেনে চলতে গিয়ে আমরা বেশ কিছু ভুল ধারণাও সত্যি বলে ভেবে নিই, যা আমাদের অজান্তেই ত্বকের ক্ষতি করে থাকে। বয়সের আগেই আমাদের ত্বক তাই বুড়িয়ে যায়।

উজ্জ্বল ত্বকের জন্য সবুজ জুস: সবুজ জুস আমাদের শরীরের রক্ত পরিষ্কার করে, যা উজ্জ্বল ত্বকের একটি রহস্য। সুন্দর, লাবণ্যময় ত্বক পেতে তাই আপনি প্রতিদিনের খাবারে সবুজ জুস রাখতে পারেন। কিন্তু এটিই যে আপনার ত্বকের লাবণ্য ধরে রাখার একমাত্র উপায় এটি মোটেও ঠিক নয়। সবুজ জুসের পাশাপাশি আপনার প্রতিদিন ত্বকের সঠিক যত্ন নিতে হবে। এর জন্য নিয়মিত ক্লেন্সিং, টোনিং, ময়েশ্চারাইজিং, রোদে গেলে সানস্ক্রিন লাগানো, পর্যাপ্ত ব্যায়াম ও ব্যালেন্সড ডায়েট খাবারও সমানভাবে দরকারি।

বেশি বেশি পানি খান: কথায় আছে, পানির অপর নাম জীবন। আমাদের শরীরের জন্য পানি খুবই প্রয়োজনীয় উপাদান। পানি শরীর ও ত্বককে হাইড্রেটেড রাখে ও শরীরের জন্য ক্ষতিকর উপাদানগুলো শরীর থেকে বের করে দেয়। কিন্তু শুধু পানি আপনার শরীরকে ভালো রাখার জন্য যথেষ্ট নয়। পর্যাপ্ত পানি পান করার পাশাপাশি শাকসবজি ও ফলমূলও খেতে হবে।

একটি অ্যান্টি-এজিং ময়েশ্চারাইজারই যথেষ্ট: ময়েশ্চারাইজার আপনার ত্বককে হাইড্রেটেড রাখার পাশাপাশি বাইরের ধুলাবালি থেকেও ত্বককে নানাভাবে রক্ষা করে থাকে। সঠিকভাবে ত্বকের পরিচর্যা করলে ত্বক দীর্ঘদিন তারুণ্য ধরে রাখতে পারে। কিন্তু ত্বকে বয়সের ছাপ পড়তে দিতে না চাইলে আপনাকে অবশ্যই রাত ও দিনের আলাদা আলদা ময়েশ্চারাইজার রাখার পাশাপাশি সিরাম ও অয়েলের ব্যবহারও জানতে হবে।

যত দামি প্রোডাক্ট তত ভালো ফলাফল: অনেকে ত্বকের যত্নে সবসময় দামি প্রোডাক্টটিই বেছে নেন। তাদের ধারণা দামি প্রোডাক্ট সবচেয়ে ভালো ফলাফল দিতে পারে। সচারচর কোনো প্রোডাক্ট দামি হওয়ার পেছনে কারণ থাকে এতে ব্যবহৃত উপাদান। কিন্তু সব উপাদান আপনার ত্বকের সঙ্গে মানিয়ে নাও নিতে পারে। তাই কোনো প্রোডাক্ট কেনার আগে দাম না দেখে সেটির উপাদান দেখে কেনাই উত্তম।

আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকলে সানস্ক্রিনের প্রয়োজন নেই: দিনের সময় আপনি যখনই বাইরে যান না কেন ত্বকে সানস্ক্রিন লাগিয়ে নিতে ভুলবেন না, যদি মেঘের কারণে সূর্য দেখা না যায় তবুও। আকাশে মেঘ থাকলেও সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি দিনের আলোতে উপস্থিত থাকে, যা আপনার ত্বকের ক্ষতি করে।

সানস্ক্রিন ও এসপিএফ সম্পন্ন মেকআপ একই: যেসব মেকআপে সানস্ক্রিন থাকে তা আপনার ত্বকের জন্য ভালো কারণ আপনি কখনই চাইবেন না একটার পর একটা প্রোডাক্ট ব্যবহার করে ত্বকে মেকআপের আস্তরণ তৈরি হোক। ত্বক ভালো রাখতে চাইলে অবশ্যই তা হালকা রাখতে হবে। কিন্তু মেকআপের সানস্ক্রিন কখনই অরিজিনাল সানস্ক্রিনের মতো কার্যকরী হবে না। ক্তি

ভ্রুকুটি করা কিংবা হাসি বলিরেখার জন্য দায়ী: অনেকে মনে করেন মুখের নানারকম ভঙ্গিমা ত্বকে বলিরেখার সৃষ্টি করে। এই ভয়ে অনেকে হাসাও ছেড়ে দেন। কিন্তু ভ্রুকুটি করা কিংবা হাসা নিতান্তই ফেসিয়াল এক্সপ্রেশন, এটির সঙ্গে ত্বকের বলিরেখার কোনো সম্পর্কই নেই। অপরদিকে স্ট্রেস, ধূমপান, ডিহাইড্রেশন আপনার ত্বকে অচিরেই বলিরেখা ফেলতে পারে।

- রুবায়েত মহিউদ্দিন