বুধবার,২৬ Jul ২০১৭
হোম / বিনোদন / বিউটি অ্যান্ড দ্য বিস্ট: ডিজনির ক্লাসিক নতুন আঙ্গিকে
০৪/২৫/২০১৭

বিউটি অ্যান্ড দ্য বিস্ট: ডিজনির ক্লাসিক নতুন আঙ্গিকে

-

ডিজনির নতুন লাইভ-অ্যাকশন মিউজিকাল ‘বিউটি অ্যান্ড দ্যা বিস্ট’-এর মাধ্যমে বড় পর্দায় কল্পলোকের জনপ্রিয় চরিত্ররা নতুন এবং সমসাময়িক আঙ্গিকে আবার হাজির হয়েছে।

এর আগে মুক্তিপ্রাপ্ত অ্যানিমেটেড মুভিটি ডিজনির সেরা সিনেমাগুলোর মধ্যে একটি হিসেবে দর্শক মহলে বিশেষভাবে সমাদৃত। কাজেই এটির লাইভ অ্যাকশন ভার্সনটিও যে তুমুল জনপ্রিয় হবে তা আগে থেকেই অনুমান করা হয়েছিল।

‘বিউটি অ্যান্ড দ্য বিস্ট’ মুভিটি বেল নামধারী এক সুন্দরী বুদ্ধিমতী, স্বাধীন নারীকে ঘিরে আবর্তিত হয়। বেল-কে এক জন্তু তার প্রাসাদে বন্দি করে। জন্তুটি হলো এক প্রাক্তন রাজপুত্র, যাকে এক যাদুকরী এরকম প্রাণীতে রূপান্তরিত করে। রাজপুত্রের যে সকল দাস ছিল তাদেরকে প্রাসাদের ভেতরে বিভিন্ন বস্তু বানিয়ে ফেলা হয়। যাদুকরী শর্ত দেয় যে, যেই গোলাপের বিনিময়ে সে প্রাসাদটিতে আশ্রয় চেয়েছিল, তার শেষ পাপড়ি ঝরে যাবার আগেই যেন জন্তুটি কাউকে ভালোবাসে এবং তার ভালোবাসার মানুষটিও তাকে সত্যিকার অর্থে ভালোবাসতে পারে। বিভিন্ন ঘটনার মাধ্যমে মুভিটি এগিয়ে যায়।

বেল চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিশ্বখ্যাত ‘হ্যারি পটার’ সিরিজের হারমায়েনি খ্যাত এমা ওয়াটসন। একজন আধুনিক চিন্তাসম্পন্ন, বইপ্রেমী নারীর চরিত্রে এমা ওয়াটসন যোগ করেছে এক নতুন মাত্রা। ডিজনির এই কাহিনি যতই পুরোনো হোক না কেন, তা উপস্থাপন করা হয়েছে নতুন ভাবধারায় এবং এই গুরু দায়িত্বটি এমা ওয়াটসন যথেষ্ট মুন্সিয়ানার সাথে পালন করেছেন।

দ্য বিস্ট চরিত্রে অভিনয় করেছেন ড্যান স্টিভেন্স। ‘ডাউন্টাউন অ্যাবি’ এবং ‘নাইট এট দ্য মিউজিয়াম’- এর এই অভিনেতার বড় পর্দায় এটিই প্রথম বড় চরিত্রের কাজ বলা যায়।

গ্যাস্টন, বেলের এক পাণিপ্রার্থী, ছবির ভিলেন যাকে বলা যায়, এর চরিত্রে অভিনয় করেছেন লুক ইভান্স। হলিউডে শক্ত অবস্থান করে নেওয়া লুক আগে অভিনয় করেছেন টল্কিয়েনের হবিটের বড় পর্দার চিত্রায়ণ, ড্রাকুলা আন্টোল্ড-এর কেন্দ্রীয় চরিত্র, দ্যা রেইভেন, ক্ল্যাশ অফ দ্যা টাইটান্স, দ্য থ্রি মাস্কেটিয়ার্স (২০১২) ইত্যাদি চলচ্চিত্রে।

অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন ক্যাভিন ক্লাইন, জশ গ্যাড, হ্যাটি মোরাহান, ইওয়ান ম্যাকগ্রেগর, এমা থমসন, স্ট্যানলি টূচি, স্যার ইয়ান ম্যাকেলেনের মতো নামিদামি তারকারা।

ছবিটি পরিচালনা করেছেন অস্কার বিজয়ী বিল কন্ডন, প্রযোজনায় ম্যান্ডেভিল ফিল্মস-এর ডেভিড হোবারম্যান এবং টড লিবারম্যান। ছবির সংগীত প্রযোজনায় রয়েছেন আটবার অস্কার জেতা কম্পোজার অ্যালান মেঙ্কেন, যিনি ১৯৯১ সালে দুটো অস্কার জিতেছেন যেই এনিমেশনের ভিত্তিতে এই চলচ্চিত্র, তাতে সংগীত প্রযোজনা করায়।

যদিও ডিজনির কোনো সিনেমায় প্রথমবারের মতো সমকামী চরিত্র তুলে ধরার জন্য মুক্তির আগে থেকেই বিউটি অ্যান্ড দ্যা বিস্ট নিয়ে সমালোচনার ঝড় কম উঠেনি, তবুও মুক্তির পূর্বেই ধারণা করা হচ্ছিল যে এটি বিশ্বের অন্যতম ব্যবসাসফল মুভি হবে।

মুক্তি পাওয়ার সপ্তাহ শেষে ৪ দিনে বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে ৩৫৭ মিলিয়ন ডলার আয় করেছে ১৬০ মিলিয়ন ডলার বাজেটের এই ছবিটি। মার্চের ২৮ তারিখ পর্যন্ত মুভিটির বিশ্বব্যাপী আয় ছিল ৭২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

মার্চে মুক্তি পেয়ে বক্স অফিসে ব্যাপক সাড়া পাওয়া মুভিটি ২০১৭ সালের সেরা মুভিগুলোর মধ্যে একটি। এর আগে ২০১০ সালে ‘এলিস ইন ওয়ান্ডারল্যান্ড’ মার্কিন বক্স অফিসে ১ বিলিয়ন ডলার আয় করেছিল। ‘সিন্ডারেলা’ ও ‘দ্যা জাঙ্গাল বুক’ আয় করেছিল ৫৪৫ ও ৯৬৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

পরিবার নিয়ে সময় কাটানোর জন্য, অথবা ছোটবেলার স্মৃতি রোমন্থন করার জন্য মুভিটি দারুণ। ঢাকার বসুন্ধরা শপিং মলের 'স্টার সিনেপ্লেক্স' এবং যমুনা মলের 'ব্লকবাস্টারে' এই ছবিটি দেখানো হচ্ছে। সুন্দর উপস্থাপনার মাধ্যমে প্রাণবন্ত এই মুভিটি দেখতে পরিবার বা বন্ধুবান্ধবকে নিয়ে চলে যান, ভালো একটি সময় কাটবে বলে আশা করা যায়।

- আফতাব