শনিবার,২২ Jul ২০১৭
হোম / জীবনযাপন / শিশুকে কাদামাটিতে খেলতে দিন
০৩/২০/২০১৭

শিশুকে কাদামাটিতে খেলতে দিন

-

আধুনিক যুগে আমরা বেশ স্বাস্থ্যসচেতন। বিশেষ করে মায়েরা তাদের সন্তানদের সুস্থ থাকার ব্যাপারে করা নজরদারি রাখেন। বাইরের খাবার খাওয়া যাবে না, বৃষ্টি বা কড়া রোদে বাইরে যাওয়া যাবে না আরও কত কি। কিন্তু এত চেষ্টার পরেও দেখা যায় শিশুরা কোনো না কোনোভাবে অসুস্থ হয়ে যায়।

পরিবেশের ভারসাম্যহীনতার কারণে শিশুরা সহজেই নানারকম রোগে আক্রান্ত হতে পারে। অ্যাজমা, চর্মরোগ, অ্যাস্থেমা, এলার্জি বর্তমানে শিশুদের খুব সাধারণ সমস্যা। সচেতন মায়েরা সর্বক্ষণ চেষ্টা করে নিজেদের বাড়ি পরিষ্কার রাখার। বাড়ির সঙ্গে সঙ্গে তাদের আদরের শিশুরা পরিষ্কার থাকছে কিনা তাও খেয়াল রাখেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে অল্প সময়ের ব্যবধানে সাবান অথবা অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল সোপ ব্যবহার করার অভ্যাস গড়ে তোলা হয়। এমনকি গোসলের সময়ও নিয়মিত সাবান ব্যবহার করার নির্দেশ দিয়ে থাকেন মায়েরা, মনে করা হয় এতে শিশুর রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। আসলে নিজের অজান্তেই তারা তাদের শিশুদের অসুস্থ হওয়ার পথটি করে দিচ্ছেন।

সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে গিয়ে আমরা অন্যান্য রোগজীবাণুর সঙ্গে সঙ্গে আমাদের শরীরের জন্য একান্ত প্রয়োজনীয় ব্যাকটেরিয়াগুলো মেরে ফেলি। ব্যাকটেরিয়া বলতে অনেকেই শুধু রোগ সৃষ্টিকারী জীবাণুই মনে করে থাকেন। কিন্তু আমাদের সুস্বাস্থ্য ও বেঁচে থাকার জন্য কিছু ব্যাকটেরিয়া একান্ত প্রয়োজন। দেহের বর্জ্য পদার্থের পচন ও রাসায়নিক পদার্থের ভারসাম্য বজায় রাখতে ব্যাকটেরিয়ার বিকল্প নেই। আমাদের পরিপাকতন্ত্রে ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতির কারণেই খাবার থেকে প্রয়োজনীয় পুষ্টিমান ও ভিটামিন দেহে সরবরাহ করা সম্ভব হয়।

ব্যাকটেরিয়া প্রায় সব জায়গাতেই রয়েছে-বাতাস, পানি, মাটি, খাবার কিংবা ত্বক। শরীরের জন্য উপকারী বেশিরভাগ ব্যাকটেরিয়া আসে মাটি ও পানি থেকে। প্রতিনিয়ত বাইরে খেলতে যেতে বারণ করে ও অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল সোপ ব্যবহার করতে বলে আপনি আপনার শিশুকে দিন দিন দুর্বল করে দিচ্ছেন। শিশুদের সুস্থ রাখতে নিজের অজান্তেই আপনি শিশুকে এমন খাবার দিচ্ছেন যাতে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যাকটেরিয়া রয়েছে। কিন্তু এসব ব্যাকটেরিয়া চিরস্থায়ী না, তাই শরীর সুস্থ রাখতে প্রয়োজন নিয়মিতি শরীরে ব্যাকটেরিয়ার যোগান দেওয়া। শুধুমাত্র খাবার দিয়ে এই চাহিদা পূরণ করা সম্ভব না।

তাই আপনার শিশুকে প্রতিদিন কিছু সময়ের জন্য হলেও মাটিতে খেলতে দিন। বাইরের পরিবেশ স্বাস্থ্যকর মনে না হলে চেষ্টা করুন নিজের বাসায় ছোট একটি বাগান করে নেওয়ার। বাগানে প্রতিদিন আপনার শিশুকে মাটি নিয়ে খেলতে দিন, পর্যাপ্ত পানির ব্যবস্থাও থাকা জরুরি। সময় পেলে আপনিও আপনার শিশুর সঙ্গে কাদা-মাটিতে নেমে যান। এতে যেমন আপনাদের দুজনের স্বাস্থ্য ভালো থাকবে, পাশাপাশি আপনারা একসঙ্গে ভালো কিছু মুহূর্ত কাটাতে পারবেন। বাসায় যদি বাগান করার জন্য প্রয়োজনীয় জায়গা না পান তবে বারান্দায় টবে কিছু গাছ লাগাতে পারেন। সেখানে আপনার শিশুর খেলার ব্যবস্থা করে দিতে পারেন। বাচ্চাদের নিয়মিত সবুজ শাকসবজি খাওয়া অভ্যাস করাতে পারেন। কাঁচা সবজি যেমন গাঁজর, টমেটো ও ফল খেলে শরীর নিয়মিত প্রয়োজনীয় ব্যাকটেরিয়া পেতে থাকবে। গোসলের সময় প্রতিদিন সাবান বা বডি ওয়াস না ব্যবহার করাই ভালো।

- রাজিয়া সুলতানা